রাজনীতি

দায়িত্ব পালনে কখনো অবহেলা করিনি : সাঈদ খোকন

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে মেয়র পদে লড়াইয়ে নগরবাসীকে পাশে কামনা করে বর্তমান মেয়র সাঈদ খোকন বলেছেন, বিগত সময়ে দায়িত্ব পালনকালে কখনো আমি অবহেলা করিনি। গত পাঁচ বছরে অনেক কাজ করেছি। এখনো কিছু কাজ বাকি আছে। আগামীতে নির্বাচিত হলে এ কাজগুলো সম্পন্ন করতে চাই।

বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে মেয়র পদে ক্ষমতাসীন দলটির মনোনয়নপত্র সংগ্রহ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে খোকন এ কথা বলেন।

সাঈদ খোকন বলেন, আমার পিতা (ঢাকার প্রথম নির্বাচিত মেয়র মোহাম্মদ হানিফ) বেঁচে নেই। পিতার হাত ধরে আমি রাজনীতিতে এসেছি। পিতার অবর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই আমার অভিভাবক। তিনি যেটা ভালো মনে করবেন তা-ই করবেন। তার সিদ্ধান্ত আমি মেনে নেব।

আবেগাপ্লুত কণ্ঠে ডিএসসিসির বর্তমান মেয়র বলেন, গত পাঁচ বছর ধরে বিপদে-আপদে আপনাদের পাশে ছিলাম। বর্তমানে রাজনীতিতে একটু কঠিন সময় যাচ্ছে। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি যেন কামিয়াব হতে পারি। দায়িত্ব পালনকালে কখনো আমি অবহেলা করিনি। গত পাঁচ বছরে অনেক কাজ করেছি। এখনো কিছু কিছু কাজ বাকি আছে। আগামীতে (মেয়র পদে) নির্বাচিত হলে এ কাজগুলো সম্পন্ন করতে চাই।

গত বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি-ডিএসসিসি) নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের জন্য এ ফরম বিক্রি শুরু করা হয়। আগামী ২৭ ডিসেম্বর (শুক্রবার) পর্যন্ত আগ্রহী প্রার্থীরা ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন। শেষ দিন, অর্থাৎ শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ফরম বিক্রি চলবে।

এর আগে বুধবার ডিএসসিসিতে মেয়র পদে লড়তে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন দুই সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপস ও হাজী মোহাম্মদ সেলিম। ডিএনসিসিতে এ পদে লড়তে বুধবারই আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন বর্তমান মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

মনোনয়নপত্র বিতরণ শেষে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভায় দলটির প্রার্থী নির্বাচিত করা হবে।

ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি মিলে সাধারণ ও সংরক্ষিত মোট ১৭২টি পদ রয়েছে। ডিএনসিসিতে সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদ ৫৪টি এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদ ১৮টি। ডিএসসিসিতে সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদ ৭৫টি এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদ ২৫টি।

ডিএনসিসিতে ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬২১ জন। আর ডিএসসিসিতে এ সংখ্যা ২৩ লাখ ৬৭ হাজার ৪৮৮।

আগামী ৩০ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) ডিএনসিসি ও ডিএসসিসির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পুরো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)। ওইদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close
Close