ক্রিকেটখেলাধুলা

পাকিস্তান যেতে চান সব ক্রিকেটারই, তবে সফর নিয়েই সংশয়!

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন কয়েকদিন আগে বলেছিলেন, পাকিস্তান সফরে যেতে রাজি নয় কোনো কোনো ক্রিকেটার, আবার কেউ কেউ রাজিও আছে।’ বিসিবিও আগে থেকেই বলে রেখেছে, চাপ প্রয়োগ করে কোনো ক্রিকেটারকে পাকিস্তান পাঠানো হবে না।

বিসিবি সভাপতি ওই সময় আরও বলেছিলেন, ‘আমাদের মোটামুটি একটি ভালো দল তৈরি করতে হবে।’ কিন্তু ভেতরের খবর, সাতদিনের তিন টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সিরিজ খেলার জন্য পাকিস্তান যেতে রাজি সব ক্রিকেটারই।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর সঙ্গে কথা বলে এমন আভাসই মিলেছে এবং নান্নু জাগো নিউজকে জানিয়েছেন, ‘আমাদের দল সাজানোর কাজও এগিয়ে চলেছে। ৭-৮ তারিখের মধ্যে আমরা দল দিয়ে দেবো।’

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে পাকিস্তান সফরটা আদৌ হবে কি না? কারণ, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড কোনোভাবেই চায় না বাংলাদেশকে শুধুমাত্র টি-টোয়েন্টি সিরিজে। পাশাপাশি তারা বাংলাদেশকে চায় দুই টেস্টের সিরিজেও। গত কিছুদিনের বক্তব্য-বিবৃতিতে এ ব্যাপারে তারা খুব আক্রমণাত্মক মুডেই রয়েছে বলেই মনে হচ্ছে।

এদিকে, বিসিবির কাছে পিসিবি যে চিঠি দিয়েছে, সেখানেও পরিস্কার বলা আছে, ‘অবশ্যই আমরা শুধু টি-টোয়েন্টি নয়, টেস্ট সিরিজেও বাংলাদেশকে চাই।’

জানা গেছে, বিসিবি সরাসরি পিসিবির ওই প্রস্তাবে একেবারে ‘না’ করে দেয়নি। বিসিবির বক্তব্য অনেকটা এরকম, ‘আামরা আগে এক সপ্তাহের মধ্যে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে আসি। তারপর অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেবো।’ বিসিবি সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজনও এক কথা সরাসরি মিডিয়াকে জানিয়ে দিয়েছেন।

কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড তাদের দাবিতে অনড়। তারা বাংলাদেশকে অন্তত ২৫ দিনের জন্য পাকিস্তানে আতিথেয়তা দিতে চায়। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও অনড় যে, তারা এক সঙ্গে দুই সিরিজ খেলতে প্রায় একমাস পাকিস্তানে থাকতে রাজি নয়। অন্যদিকে পিসিবিও সাতদিনের জন্য বাংলাদেশকে নিতে আগ্রহী নয়। দুই বোর্ডের এমন অনড় অবস্থানের কারণে, বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফর আদৌ হবে কি না তা নিয়ে জোর সংশয় দেখা দিয়েছে।

তবে একটা কথা বলেই দেয়া যায়, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড কোনোভাবেই টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজ একসঙ্গে খেলতে যাবে না। সরাসরি, মুখফুটে কোনো কর্মকর্তা কিছু না বললেও ভেতরের খবর, বিসিবি টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর অন্য সময়ে এক ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার জন্য পাকিস্তানে যেতে রাজি আছে।

এটাও বিকল্প প্রস্তাব হিসেবে পাঠানো হয়েছে এবং সে ক্ষেত্রে পাকিস্তান যখন ফিরতি সিরিজে বাংলাদেশে আসবে, তখন দুই ম্যাচের পরিবর্তে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার প্রস্তাবনা রয়েছে। পিসিবি তাতে রাজি হলেই কেবল বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর হবে। নচেৎ, পুরো সিরিজটাই বাতিল হয়ে যেতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close