ক্রিকেটখেলাধুলা

১৭৫ কি.মি গতিতে বল করে চমকে দিলেন নতুন ‘মালিঙ্গা’!

নিজস্ব প্রতিবেদক : দক্ষিণ আফ্রিকায় চলমান অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার গতিতে বল করে ক্রিকেটবিশ্বে হইচই ফেলে দিয়েছেন ‘নতুন মালিঙ্গা খ্যাত’ মাথিস পাতিরানা।

ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ব্যাটিং ইনিংসের চতুর্থ ওভারে ওপেনার যশশ্বী জয়সওয়ালের বিরুদ্ধে ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার গতিতে বল করেন লাসিথ মালিঙ্গার মতো বোলিং অ্যাকশনের মতো ওই কিশোর। স্বভাবতই খবরের শিরোনামে উঠে এসেছেন এ টিনএজার।

স্পিডোমিটারে ধরা পড়ে, পাতিরানার ওই ওভারের পঞ্চম ডেলিভারিটি ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার গতিতে ছিল। বলটি অবশ্য যশশ্বীর মাথার অনেকটা ওপর দিয়ে বেরিয়ে গেছে। যে কারণে সেটি ওয়াইড ডাকেন আম্পায়ার।

শেষ পর্যন্ত ৮ ওভার বল করে ৪৯ রান খরচ করেন পাতিরানা। তবে কোনো উইকেটের দেখা পাননি। কিন্তু গতির ঝড় তুলে শোরগোল ফেলে দিয়েছেন তিনি। অবশ্য বিশ্বকাপের আলোচিত ডেলিভারি নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেছে। স্পিডোমিটারে কোনো ত্রুটি রয়েছে কিনা, সেই কথা উঠছে। যদিও আইসিসি এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

এর আগে, গেল বছর স্টেপ্টেম্বরে ক্যান্ডিতে ত্রিনিটি কলেজের হয়ে এক ম্যাচে ৭ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট শিকার করেন পাতিরানা। স্বাভাবিকভাবেই সংবাদ শিরোনামে উঠে আসেন তিনি। একের পর এক ভয়ঙ্কর ইয়র্কারে উইকেট তুলে নেন উদীয়মান ও প্রতিশ্রুতিশীল পেসার। ওই সময় তার দুরন্ত বোলিং সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল।

রবিবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৯৭ রান তোলে ভারত। জবাবে এ রান তাড়া করতে নেমে ২০৭ রানে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা। ফলে ৯০ রানে জেতে কিশোর টিম ইন্ডিয়া।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সর্বোচ্চ গতির ডেলিভারি পাকিস্তানের সাবেক স্পিডস্টার শোয়েব আখতারের। ২০০৩ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘণ্টায় ১৬১.৩ কিলোমিটার গতিতে বল করেন তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close
Close