জাতীয়ঢাকা

ঢামেকের ৪ চিকিৎসক কোয়ারেন্টাইনে

রানা আহমেদ: করোনা সন্দেহে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের চার চিকিৎসককে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। তারা  নিয়মিত ঠাণ্ডা, জ্বর ও নিউমোনিয়ার রোগী দেখতেন।
আজ বুধবার (১৮ মার্চ) ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, করোনা রোগীর সংস্পর্শে আসায় চারজন চিকিৎসক হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তাদের মধ্যে দু’জন হাসপাতালের মেডিসিন ও অপর দু’জন নেফ্রোলজি বিভাগের চিকিৎসক।
সম্প্রতি ঢামেকে চারজন রোগীর শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ পাওয়ায় তাদের কুয়েত মৈত্রী ও কুর্মিটোলা হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন এই চিকিৎসকরা। পরে আইইডিসিআরের পরীক্ষায় তাদের করোনা রোগী হিসেবে শনাক্ত করা হয়।
চিকিৎসকদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো বিষয়ে অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ বলেন, এই চিকিৎসকদের কেউ-ই আক্রান্ত নন। যেহেতু তারা ১০ রোগীকে অ্যাটেইন করেছিলেন তাদের মধ্যে চারজনের রক্তে পজেটিভ এসেছিল। ফলে আমরা এই চিকিৎসকদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছি।
আবুল কালাম আজাদ আরোও বলেন, সামান্য জ্বর, সর্দি-কাশি নিয়ে কোনো রোগীর হাসপাতালে আসার প্রয়োজন নেই। বাসায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে তাদের।
এর আগে, সকালে ঢামেকের অধ্যক্ষসহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানদের সঙ্গে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম নাসির উদ্দিন এক জরুরি বৈঠকে বসেন। দীর্ঘ দেড় ঘণ্টা বৈঠকে করোনা ভাইরাস নিয়ে আলোচনা হয়।
এদিকে দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪ জনে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে প্রথম এক ব্যাক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।
দেশে সর্বপ্রথম গত ৮ মার্চ করোনা ভাইরাসে তিনজন শনাক্ত হন। এই তিনজনের মধ্যে দুজন ইতালি থেকে সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন। তাঁদের সংস্পর্শে এসে অন্য একজন করোনায় আক্রান্ত হন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close
Close