ধর্ম

ঈমানি মৃত্যু ও জাহান্নাম থেকে মুক্তির আমল

নিউজ ডেস্ক : আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘প্রত্যেক মানুষকেই মৃত্যুর স্বাদ আস্বাদন করতে হবে।’ তাইতো কবি বলেছেন, ‘জন্মিলে মরিতে হবে, অমর কে কোথা ভবে’।

যারা ঈমাণের সঙ্গে মারা যাবে জাহান্নাম তাদের জন্য হারাম। জান্নাতের সুসংবাদ তাদের জন্যই। তাই মৃত্যুর আগেই ঈমান নিয়ে মৃত্যু বরণ করার আমল করা জরুরি।

আবার ঈমানি মৃত্যুর পাশাপাশি জাহান্নাম থেকে মুক্তি লাভের আমলও অধিক প্রয়োজন। ‘ঈমানি মৃত্যু ও জাহান্নাম থেকে মুক্তি’ এক সঙ্গে দুই আমলের এক সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে মুসলিম উম্মাহর জন্য। ঈমানি মৃত্যু ও জাহান্নাম থেকে মুক্তির আমল:

উচ্চারণ: রাব্বানা মা খালাক্বতা হা-যা বা-ত্বিলান, সুবহা-নাকা ফাক্বিনা ‘আযাবাননা-র।

রাব্বানা ইন্নাকা মান তুদখিলিননা-রা ফাক্বাদ্ আখঝাইতাহু, ওয়া মালিজজ্বা-লিমী-না মিন্ আনছা-র।

রাব্বানা ইন্না-না সামি’না মুনা-দিআই ইউনা-দী লিলঈমা-নি আন আ-মিনু বিরাব্বিকুম ফা আ-মান্না;

রাব্বানা ফাগফিরলানা যুনুবানা ওয়া কাফফির আন্না সাইয়্যেআ-তিনা ওয়া তাওয়াফ্ফানা মাআ’ল আবরা-র।

অর্থ: ‘হে আমাদের প্রতিপালক! এসব তুমি অনর্থক সৃষ্টি করনি। পবিত্রতা তোমারই জন্য। আমাদেরকে তুমি জাহানড়বামের শাস্তি থেকে বাঁচাও। হে প্রতিপালক! নিশ্চয়ই তুমি যাকে জাহানড়বামে নিক্ষেপ কর তাকে অপমানিত কর। আর যালিমদের জন্য কোন সাহায্যকারী নেই।

হে আমাদের প্রভু! আমরা ঈমান আনার জন্য একজন আহবানকারীকে আহবান করতে শুনে ঈমান এনেছি।

হে আমাদের পালনকর্তা! তুমি আমাদের সকল গোনাহ মাফ করে দাও। আমাদের সকল দোষ-ত্রুটি দূর করে দাও। আর নেক লোকদের সঙ্গে আমাদের মৃত্যু দাও।’ (সুরা আনআম : আয়াত ১৯১-১৯৩)

আমলের উৎস:
আল্লাহ তাআলার সৃষ্টি ও সৃষ্টি জগতের ওপর চিন্তা-গবেষণা করে তার মাহাত্ম্য ও সুমহান কুদরত সম্পর্কে জানা একটি মহান ইবাদত।

আল্লাহর কুদরত সম্পর্কে গবেষণা করে জ্ঞানার্জন না করা চরম নির্বুদ্ধিতার শামিল। আল্লাহ তাআলার জগত ও সব বস্তু সৃষ্টির পিছনে নিহিত রয়েছে হাজারো তাৎপর্য।

আল্লাহর মহত্ম ও কুদরত সম্পর্কে চিন্তা-ভাবনা না করে বেপরোয়া জীবন যাপন করে যেন জাহান্নামে যেতে না হয়; সে বিষয়ে মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করা ঈমানদারদের একান্ত দায়িত্ব ও কর্তব্য।

ঈমানদারগণ যাতে আল্লাহর সৃষ্টির বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করার মাধ্যমে জাহান্নামের আজাব থেকে মুক্তি লাভ করে; হাশরের ময়দানে লাঞ্ছিত ও অপমানিত না হয় এবং ঈমানের সঙ্গে মৃত্যু বরণ করে। এ আয়াতে কারিমাগুলো সে নির্দেশনায় রয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close