খেলাধুলাফুটবল

মেসি জাদুতে মায়োর্কাকে উড়িয়ে শুরু বার্সেলোনার

 ক্রীড়া ডেস্ক  আলোর বার্তা ২৪.কম:  মাঝে ১০০ দিনের বিরতি। লম্বা এ বিরতির পরও ধার কমেনি ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনার। করোনাভাইরাসে কারণে স্থগিত লিগ ফের শুরু করেছে তারা চ্যাম্পিয়নদের মতোই। অধিনায়ক লিওনেল মেসির জাদুতে মায়োর্কাকে রীতিমতো উড়িয়ে দিয়েছে দলটি। ৪-০ গোলের জয়ে মেসি গোল পেয়েছেন একটি। তবে আরও দুটি গোলে সহায়তা করেছেন এ ক্ষুদে জাদুকর।

মায়োর্কার মাঠে শনিবার রাতে এগিয়ে যেতে এদিন মাত্র ৬৫ সেকেন্ড সময় নেয় বার্সেলোনা। জর্দি আলবার ক্রস থেকে দারুণ এক হেডে জাল খুঁজে নেন আর্তুরো ভিদাল। সপ্তম মিনিটেই ব্যবধান বাড়াতে পারতো বার্সা। ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন মার্টিন ব্র্যাথওয়েট। তবে অল্পের জন্য তার শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। চার মিনিট পর মেসির পাস থেকে একেবারে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন গ্রিজমান। তবে বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে ব্যর্থ হলে সে সুযোগ নষ্ট হয়। পরের মিনিটে গ্রিজমানের পাস থেকে মেসির নেওয়া শটও লক্ষ্যে থাকেনি।

২১তম মিনিটে সমতায় ফিরতে পারতো মায়োর্কা। রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ধারে তাকি কুবো একক প্রচেষ্টায় দারুণ এক শট নিয়েছিলেন। তবে ঝাঁপিয়ে পড়ে সে শট ফিরিয়ে দেন বার্সা গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রেস টের স্টেগেন। ৩২তম মিনিটেও সুযোগ ছিল সমতা ফেরানোর। বিপজ্জনক জায়গায় ফ্রিকিক পেয়েছিল মায়োর্কা। ভালো শটও নিয়েছিলেন কুবো। তবে আবারও তাকে হতাশ করেন গোলরক্ষক টের স্টেগেন।

পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান বাড়ায় বার্সেলোনা। কাতালান জার্সি গায়ে নিজের প্রথম গোল করেন ব্র্যাথওয়েট। ডি-বক্সের মধ্যে জটলা থেকে হেড করে তাকে বল দিয়েছিলেন মেসি। জোরালো এক শটে লক্ষ্যভেদ করতে কোনও ভুল করেননি জানুয়ারিতে লেগানেস থেকে কিনে আনা এ ডেনিশ ফরোয়ার্ড। প্রথমার্ধের যোগ করার সময়ে ব্যবধান কমানোর সুযোগ ছিল মায়োর্কার। তবে আন্তে বুদোমিরের হেড লক্ষ্যে না থাকেনি।

বিরতির পর দ্বিতীয় মিনিটেই ব্যবধান কমাতে পারতো স্বাগতিকরা। দানি রদ্রিগেজের ক্রসে ভালো হেড নিয়েছিলেন বুদিমির। কিন্তু অল্পের জন্য লক্ষ্যে রাখতে পারেননি। ৫৯তম মিনিটে মেসির বাড়ানো বল থেকে ব্যবধান বাড়ানোর সহজ সুযোগ নষ্ট করেন ব্র্যাথওয়েট। গোলরক্ষককে এক পেয়েও জোরালো শট নিতে না পারায় নষ্ট হয় সে সুযোগ।

পরের মিনিটে আবার সহজ সুযোগ নষ্ট করে বার্সা। এবার অবশ্য ডিফেন্ডার রোনাল্ড আরাইও। মেসির ক্রস থেকে পা ছোঁয়ালেও অল্পের জন্য তা লক্ষ্যে থাকেনি। ৬৬তম মিনিটে জটলার মধ্যে রাকিতিচের কাছ থেকে পাওয়া বলে মেসির ভলি বারপোস্টের অনেক উপর দিয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

৭৫তম মিনিটে গোল পেতে পারতো মায়োর্কা। মার্তিন ভালিয়েন্তের পাস থেকে আলেহান্দ্রো পোজোর দূরপাল্লার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। চার মিনিট পর ব্যবধান আরও বাড়ায় বার্সা। মেসির বুদ্ধিদীপ্ত পাস থেকে বল পেয়ে দারুণ এক কোণাকোণি শটে বল জালে জড়ান আলবা।

৮৭তম মিনিটে ইয়ানিস সালিবারের ক্রস থেকে  লাগো জুনিয়রের কোণাকোণি শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে হতাশা বাড়ে স্বাগতিকদের। ম্যাচের যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে আরও একবার হতাশ হয় দলটি। সালিবারের ক্রস থেকে আবদন প্রাতসের হেড একেবারে বারপোস্ট ঘেঁষে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

দুই মিনিট পর উল্টো আরও একটি গোল হজম করে মায়োর্কা। এবার গোল পান মেসি। বদলী খেলোয়াড় লুইস সুয়ারেজের পাস থেকে দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে জোরালো এক শটে বল জালের ঠিকানায় পাঠান এ আর্জেন্টাইন। লিগে এটা তার ২০তম গোল।

পরের মিনিটে আরও একটি ভালো সুযোগ পেয়েছিল তারা। সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি মেসিরা। তবে তারপরও বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে শিরোপাধারীরা।

এ জয়ে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট হলো ৬১। এক ম্যাচ কম খেলে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। ১৮ নম্বরে থাকা মায়োর্কার সংগ্রহ ২৭ পয়েন্ট।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close