সাহিত্য

সাংবাদিক রাব্বী হোসাইনের কবিতা “রোবট”

“রোবট”                                                                                                          ,                            

যে বিধান হয়েছে রচিত তোমার আকাংখায়
সে বিধানে কখনও আমি আমাকে দেখিনাই
দেখেছি সেথা অবিকৃত আমি আধুনিক সে রোবট।
নেই কোনখানে সুখালিঙ্গন শুধু রয়ে গেছে সংকট
আমাকে করেছো আশ্রয়স্থল প্রয়োজনে প্রিয়জন
অভিলাষে হয়ে দন্ডায়মান গড়েছো যাপিত জীবন
চতুষ্কোণে দিয়েছ আমার যে কানুনের বলয়
তাহাতে রাখনি লাগাম লাগানোর এতটুকুও উপায়
নিশ্চিত করে সুখটাকে কেন মনে কর তা জীবন
অথচ দেখো জীবনটা তো অনিশ্চিত এক ভ্রমন
কর্পোরেট ঐ জীবনটাকে সুখের উৎস ভাবো
অথচ সেথায় একই রেখায় জীবন আবদ্ধ
নিরাপত্তাই যদি শেষ কথা হয় জীবনের সংজ্ঞায়
মাতৃগর্ভ ছেড়ে কেন তবে ভবের এ বারান্দায়
কি কারন কি রহস্য এই জন্মানোর নেপথ্যে
জানার ক্ষুধা কি মিটেছে কখোনও তত্ত্ব উপাত্তে
সৌন্দর্য ঐশ্বর্য এসবের অহংকার?
বেদনা লগ্নে সান্ত্বনা দিতে ক্ষমতা নেই যার।
অবিরত যদি চলিতে থাক এ ধারাবাহিকতায়
তবে নিঃসঙ্গতা শুধু সময়ের দাবি বেঁচে থাকাটায় দায়
সহজ জীবন করেছো কঠিন অযাচিত সংশয়ে
মিথ্যে গুলোকে করেছো গ্রহন সত্যকে তাড়িয়ে,
গ্রন্থ নামের মহাপতঙ্গ করিয়া গলধ্যকরণ
শিক্ষিত করেছো মস্তিষ্ককে বিবেকের অকাল মরন।
……………………….রাব্বী হোসাইন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close